কবিতা বিশেষ সংখ্যা

অপ্রাসঙ্গিক | তন্ময় ভট্টাচার্য | কবিতা | শারদীয় সংখ্যা

আমাদের যুদ্ধগুলি খেলার আড়ালে বেশ ডাগর হয়েছে
ঘোড়াপ্রতি বাজি আর বাজিপ্রতি বিস্ফোরণে আহত অনেক
এসব নিমিত্তমাত্র, আসলে শাসনতন্ত্র পুরুষ্টু এমন
আমাদের ঘোড়াগুলি ময়দানি ঘাসে বেশ অগুন্তি পাঁজর
পাঁজর অর্থাৎ পথে পড়ে-পড়ে ফ্যান চাওয়া, বিলিতি শকুন
পাঁজর অর্থাৎ স্মৃতিচারণা ও কবেকার তেতাল্লিশ সাল
আমাদের যুদ্ধগুলি হাতে-হাতে নিয়ে এল শান্তির বচন
বুদ্ধের খাতিরে এই জঙ্গনামা পুড়িয়ে ফেলুন!

২.

একটি দোদুল্যমান পাখা হইতে দুলে-দুলে বিষণ্ণ মানুষ
নতুন বিজ্ঞানসূত্র বার করল কিংবা কোনো কারণই ছিল না
প্রতিশোধ নেওয়া ছাড়া, এতখানি নাগরিক কবে সে হয়েছে
একটি দোদুল্যমান লিঙ্গ কিন্তু অনুপাতে সুদূরপ্রসারী
প্রসারিত হওয়া ছাড়া আর-কোনো ধর্ম নেই কোমল বস্তুর
সংকুচিত হতে হতে মানুষ শিখেছে ধর্ম মুঠোর ভেতর
সহজে এঁটেছে লিঙ্গ মানুষ বিজ্ঞানসূত্র সহজে আঁটুক
একটি দোদুল্যমান নবজাগরণে ও পাখায়

৩.

মহামতি হে কুকুর আপুনি ডাকিলে পরে মন্দ্র রাত হয়
ঘটনা চূড়ান্ত হয় বোমা পড়ে নির্বিবাদ এবং পথিক
যেহেতু ঘরের মধ্যে হে কুকুর মহামতি আপুনি বলুন
আদালতে সাক্ষ্য দিন পুলিশের ডাণ্ডা খেয়ে বয়ানে বদল
বাদলও ছাইল আহা বোমা কই শব্দ কই গুজবই এখন
বিরোধীপক্ষের অস্ত্র আপুনিও হে ক্যাডার শালা গুপ্তচর
মাঝরাত্রে ডাকি আর পিস্তল ঠেকিয়ে সর্বশিক্ষা অভিযান
আপুনি সাক্ষর হইলে মুই তবে কোথা যাই বাপ!

তন্ময় ভট্টাচার্য

জন্ম ১৪ সেপ্টেম্বর ১৯৯৪, পশ্চিমবঙ্গের বেলঘরিয়ায়। প্রকাশিত কবিতার বই — দীপাবলি নাকি শবযাত্রা (২০১৮), বেইমানির যা-কিছু চিরাগ (২০১৯), বাংলার ব্রত (২০২২) ও অবাঙ্‌মনসগোচর (২০২৩)।

    Leave feedback about this

    • Rating

    PROS

    +
    Add Field

    CONS

    +
    Add Field
    X