কবিতা

কবিতাগুচ্ছ | মিনার মনসুর | সন্ন্যাসী আরণ্যক | হাসনাইন হীরা

দেখুন তো আমার পা-দুটি কোথায় | মিনার মনসুর

বাংলা একাডেমির প্রবীণ বটবৃক্ষটিকে বলিÑ সাবধান, চাচা সাবধান। এসেছে বিপ্লবের কাল। ওরা আপনার প্রাচীন পাতলুন ধরে দেবে টান! বলবে, হটাও জঞ্জাল। আপনার রাবীন্দ্রিক শ্মশ্রুর দোলনায় দোল খেতে খেতে সদ্য কেনা আইফোনে যারা সেলফি তুলছে, তারা সকলেই বিপ্লবী আজ। আস্তিনের নীচে হাতুড়ি-শাবল নিয়ে ঘোরে। ব্যক্তিগত চিড়িয়াখানা ভরে গেছে বহু জনমের অধরা ডলার-হরিণে। বিপ্লব তাই ঘরে ঘরে। বিপ্লবের পতাকা ওড়ে সবকটি মার্কিন দূতাবাসে।

– বাবা, আমি বুইড়া মানুষ। কবরের দিকে কাত হইয়া আছি। বর্ধমান হাউস জানে কতটা নির্বিরোধ বৃক্ষ আমি। পাকিস্তানি পশুরাও মারে নাই যারে তারে আবার মারবো কেডা?

রামুর নিভৃত পাহাড়চূড়ার সিংহশয্যা থেকে বাংলার মানচিত্রজুড়ে তার অগ্নিদগ্ধ বিক্ষত হাতখানি প্রসারিত করেন গৌতম বুদ্ধ। বামিয়ানের ধ্বংসস্তূপ থেকে সন্ত ধীরেন্দ্রনাথ দত্তের মতো কাদা-রক্তে হামাগুড়ি দিতে দিতে হামাগুড়ি দিতে দিতে বড় বুদ্ধ বলেন, জনাব চে গুয়েভারা, দয়া করে দেখুন তো আমার পা-দুটি কোথায়?
ঢাকা: ৯ এপ্রিল ২০২৩

দৈনন্দিন রিভার্সসমূহ | সন্ন্যাসী আরণ্যক

দুপুর দেখায় অহরহ রাতের গভীর নির্জন।
যেমন সকাল-সন্ধ্যা। ফলত নিয়মে আর বিষণ্ণতা নামছেনা।

হারিয়ে যাচ্ছে পাখি স্বভাব।
যারপরনাই অপাঠ্য থাকছে মদ ও মাংসের পবিত্র কেতাব।

ফেরার তাড়না নিয়ে উড়ুয়াগণ
ঝড় কিংবা তদীয় অভিঘাতে হারায় অবিশিষ্ট বেশ।
সমীকরণ অপূর্ণ রেখে—
মনোতিক সূত্রাবলী খুঁজে নেয় বুকের মখমল।

চাঁদ ও পৃথিবীর জলজ আকর্ষণ অগ্রাহ্য—
পুরোনো বারাঙ্গনা ফিরে চায় হারানো উচ্ছ্বাস,
বুকের নিটোল স্থাপত্য, ঠোঁটের খরতা।

এইসব হিসেব-নিকেশ, বৃহৎ-ক্ষুদ্র
অধিআইনের পোষ্যগামী।

অথচ ঠিক নিয়মেই খুলে যায় লিফটের সাটার, তোমার প্রেমিক চিনে যায় আমাদের গুপ্ত এভিনিউ।

শিরোনামহীন কবিতা | হাসনাইন হীরা

ত এর পরে থ লিখে তুমি কি থেমে যেতে
চাও!

স্বচ্ছতার দিকে হেঁটে যাচ্ছে নদী।
তুমি তার উপচে পড়া মনের ভেতর মন ঢুকিয়ে
বুনে যাচ্ছ অন্তর্জাল।
হাতের ভেতর হাত ঢুকিয়ে সেলাই করে যাচ্ছ
ছেঁড়াখোড়া জীবন।
একবারও ভাবলে না, এ-জীবন সেলাইযোগ্য কিনা!…
ঘন হয়ে আসছে তর্কতোলা বিকেল,
জলযোগের পাশেই ভুলযোগের বর্ণঝড় জটখুলে আছে
উড়ে যাচ্ছে
খড়কুটো
স্বপ্ন
জনপথ
যেখানে হৃদয় একটা তাঁবু
যার নিঃকণ্ঠ আলাপের প্যান্ডরা ভেদ করে
উড়বো বলেই পেখম মেলে আছি; তুমি দেখতে পাচ্ছ না
কেন?

    Leave feedback about this

    • Rating

    PROS

    +
    Add Field

    CONS

    +
    Add Field
    X